সোশ্যাল মিডিয়া কি বা কাকে বলে। what's social media

Share:

সোশ্যাল মিডিয়া কি এই বিষয় অনেকের মনে জেগে ওঠে। আমরা প্রায় শুনে থাকি সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ভিডিও ভাইরাল হয়ে গেছে বা সোশ্যাল মিডিয়ার অমুক রাজনৈতিক নেতা অমুক বলেছে বা এই ফ্লিম স্টার এই ছবি পোস্ট করেছেন। আসলে সোশ্যাল মিডিয়া কি। 

আপনি যদি স্মার্ট ফোন ব্যবহার করে থাকেন তবে নিশ্চয়ই "Social media" বা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের নাম আগে শুনে থাকবেন। হয়তো আপনিও কোন না কোন সোশ্যাল মিডিয়ার সাথে জরিতোও আছেন। আসুন দেখি সোশ্যাল মিডিয়া কাকে বলে। 

সোশ্যাল মিডিয়া কি
সোশ্যাল মিডিয়া


সোশ্যাল মিডিয়া কি বা কাকে বলে? 

সোশ্যাল মিডিয়া হলো একটি অনলাইন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম যার শুরু ইন্টারনেটের হাত ধরেই হয়েছিল। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আপনি চার্টিং, ম্যাসেজ, ভিডিও শেয়ারিং, ফটো শেয়ারিং, ভিডিও কল ইত্যাদি করতে পারেন।

মিডিয়া অর্থাত একাবারে কোন কিছু সকলের সামনে তুলে ধরা। সোশ্যাল মিডিয়ায় রোজের মিলিয়ন মানুষ All time active থাকে। যেকোনো সাধারণ মানুষকে সোশ্যাল মিডিয়া রাতারাতি ফেমাস বানিয়ে দিতে পারে যেমন Ranu Mondal, Baba ka dhaba etc.

সমস্ত সোশ্যাল মিডিয়ায় যে একি বিষয় তর্থ পাওয়া যাবে এমন কোন কথা নেই। প্রতি সোশ্যাল ভিডিয়ায় ভিন্ন কিছু পাওয়া যেতে পারে যেমন ফেসবুক এখানে আপনি বন্ধুদের সাথে কথা বলা ছাড়াও হাজার মানুষের সাথে গ্রুপে বা পেজে যুক্ত হতে পারেন, ইন্সটাগ্রাম এখানে আপনি ছবি বা সট ভিডিও শেয়ারিং করতে পারেন। মানে সব সোশ্যাল মিডিয়া এক না।

সোশ্যাল মিডিয়ার সুফল বা উপকার

  • কোন ঝামেলা ছাড়ায় আপনার মনের কথা দুনিয়ার মানুষের সাথে শেয়ার করতে পারেন। 
  • সোশ্যাল মিডিয়ায় আপনি ঘরে বসে দেশ-বিদেশের মানুষের সাথে কথা বলতে পারেন বন্ধুত্ব করতে পারেন। ( যদিও সোশ্যাল মিডিয়ার বন্ধুদের ভরসা করা উচিৎ না।)
  • আপনার কোন বিজনেস থাকলে সহজেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ফ্রী প্রমোট করতে পারবেন। 
  • সোশ্যাল মিডিয়ার সঠিক ব্যবহার জানলে এখান থেকে ঘরে বসে অনলাইন ইনকাম করতে পারবেন। 
  • সোশ্যাল মিডিয়ায় আপনার অভিজ্ঞতা সকলের সাথে শেয়ার করতে পারেন যেই বিষয় খুব কম মানুষ জানে হয়তো। 
  • আপনি ঘরে বসে গ্রুপ বানিয়েও সোশ্যাল মিডিয়ায় সকলের সাথে একসাথে যোগাযোগ রাখতে পারেন। 

সোশ্যাল মিডিয়ার কুফল বা অপকারিতা

  • বেশির ভাগ সময় এখনে ভুল তথ্য পাওয়া যায় আর তারাতাড়ি ভাইরাল হওয়ার কারণে যেকেউ এগুলো বিশ্বাস করে। 
  • এখানে সহজেই নিজের পরিচয় লুকিয়ে রাখা যায়। আমরা যার সাথে কথা বলছি তার আসল নাম কি কোথায় থাকে জানতে পারি না। ফলে যেকোন সময় যেকোন বিষয়ে আমাদের ঠকাতে পারে তাই সাবধান থাকা ভালো। 
  • সোশ্যাল মিডিয়ায় আপনি যদি আপনার সঠিক পরিচয় দিয়ে ব্যবহার করেন সেখানেও ভয় রয়ছে। যেকেউ আপনার নাম ছবি ব্যবহার করে আপনার নামে খারাপ কিছু রটাতে পারে।
  • সোশ্যাল মিডিয়ায় কারোর পারসোনাল ছবি আপলোড করে তাকে বদলামও করতে দেখা গেছে যদিও এটা সাইবার ক্রাইম অপরাধী ধরা পরলে শাস্তি পাবে। কিন্তু যার ছবি ব্যবহার করা হলো তারতো সন্মান হানি হলো। 

১০ টি জনপ্রিয় সোশ্যাল সাইট এবং তাদের কাজ।

১. ফেসবুক  "Facebook"

জনপ্রিয় সোশ্যাল সাইটের মধ্যে প্রথমেই আসে ফেসবুক। কারণ ২.৭ বিলিয়ন মাসিক অ্যাক্টিভ ব্যবহারকারি রয়েছে এখানে। এখানে আপনি একসাথে ৫ হাজার বন্ধুর সাথে যোগাযোগ রাখতে পারেন। ফেসবুক পেজ তৈরি করতে পারেন। ফেসবুক গ্রুপ বানাতে পারেন। ভিডিও চার্ট, অডিও চার্ট এবং টাইপ করে সকলের সাথে কথা বলতে পারেন। কারোর পোস্টে রিয়েক্ট দিতে বা কমেন্ট করতে পারেন। আপনার বিজনেস প্রমোট করতে পারেন ফ্রিতে। যেকেউ ফেসবুক ব্যবহার করতে পারেন একদম ফ্রিতে।

২) টুইটার "Twitter"

টুইটার ফেসবুকের মতো একটি জনপ্রিয় সোশ্যাল সাইট। 
ফেসবুকে আপনি সেলেব্রিটির প্রোফাইল খুঁজে পাবেন না। কিন্তু টুইটারে সকলের প্রোফাইল পাবেন। এবং তাদের করা টুইটের রিপ্লাইও দিতে পারবেন। টুইটারে যেকোন নিউজ খুব তাড়াতাড়ি পাওয়া যায়। এখানে ১৬০ ওয়াডে টুইট আপনি করতে পারবেন। আবার কারোর টুইট আপনার পছন্দ হলে সেটা Retweete করতে পারেন। 

৩) ইন্সটাগ্রাম "Instagram"

Instagram ব্যবহার করা খুবিই সহজ। ইন্সটাগ্রাম একটা ছবি বা সট ভিডিও শেয়ারিং সোশ্যাল মিডিয়া। এখানে আপনি যাদের ফলো করবেন তাদের করা পোস্ট আপনার হোম পেজে পাবেন। এছাড়া ইন্সটাগ্রাম ব্যবহার অনেকটা ফেসবুকের মতো। এখানে যার সাথে খুশি আপনি চাট করতে পারেন। 

৪) পিন্টারেস্ট "Pinterest"

Pinterest ইন্সটাগ্রামের মতোই ছবি শেয়ারিং সোশ্যাল মিডিয়া। তবে আপনি পিন্টারেস্টে কোন ছবি বা ভিডিও শেয়ার করলে সেটা গুগল সার্চেও খুঁজে পাওয়া যায়। সেই তুলনায় ইন্সটাগ্রামের ছবি সহজে গুগলে পাবেন না।

৫) হোয়াটসঅ্যাপ "Whatsapp"

Whatsapp এ আপনি যেকো ব্যাক্তির সাথে ভিডিও কলিং, চার্ট বা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য শেয়ার করতে পারবেন। তবে এখানে অ্যাকাউন্ট করতে হলে আপনাকে মোবাইল নাম্বার ব্যবহার করতে হবে। মানে শুধু মাত্র বিশ্বাস যোগ্য মানুষের সাথেই হোয়াটসঅ্যাপ করা যায়। এখানেও আপনি চাট গুরু তৈরি করে মিলিত ভাবে অনেকের সঙ্গে একসাথে কথা বলতে পারনে। 

৬) ম্যাসেন্জার "Messenger"

ম্যাসেন্জার ফেসবুকের তৈরি চার্ট বক্স এটা একদম হোয়াটসঅ্যাপ এর মতন। এখানে আপনি বন্ধুদের সাথে চার্ট, ভিডিও কলিং, অডিও পাঠাতে পারেন।

৭) রেডিট "Reddit"

রেডিট দ্যা ফন্ট পেজ। এই সাইট বেশি ব্যবহার করা হয় নিউজের জন্য। বাংলায় কেউ রেডিট ব্যবহার করে না। এখানেও আপনি আপনার পছন্দের গ্রুপে যুক্ত হতে পারেন।  তবে রেডিটের নিয়ম অনেক কড়া। কোন রকম স্পামিং করলেই আপনার অ্যাকাউন্ট ব্লক হতে পারে। 

৮) ইউটিউব "YouTube"

ইউটিউব সকলেই পছন্দ করেন। এখানে আপনি আপনার পছন্দের যেকোন ভিডিও খুঁজে পাবেন। আপনি যদি আপনার কোন ভিডিও ইউটিউবে আপলোড করতে চান তাহলে একটা ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করে নিতে পারেন। ইউটিউব থেকে টাকা ইনকাম করতে আপনার হাজার সাবস্ক্রাইবার আর ৪ হাজার টাইম ভিউ প্রয়োজন। 

৯) কোরা "Quora"

কোরা জ্ঞানের ভান্ডার। এটা একটা প্রপুলার প্রশ্ন উত্তর সোশ্যাল সাইট। এখানে আপনি আপনার জানা কোন প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেন আবার আপনার প্রশ্নও সকলের সামনে করতে পারেন। এখানে সব রকম প্রশ্ন করা যায়। আপনি বাংলা, হিন্দি অথবা ইংরেজি Quora ও ব্যবহার করতে পারেন। 

১০) লিঙ্কদিন "Linkedln"

আপনি যদি অনলাইনে জব খোঁজেন তবে LinkedIn আপনার জন্য বেস্ট হতে পারে। এখানে একটা অ্যাকাউন্ট তৈরি করে আপনার জানা বিষয় প্রোফাইলে দিন। অন্যরা আপনাকে সেই বিষয় জব দিতে আগ্রহ হবে। তবে রিয়াল আইডি তৈরি করতে হবে এখানে। ভিন্ন নাম ব্যবহার করলে আইডি নষ্ট হতে পারে। 


শেষকথা "Final word"

বন্ধুরা আজ আমরা এই পোস্টে জানলাম সোশ্যাল মিডিয়া কি?  এবং সোশ্যাল মিডিয়ার সুফল বা কুফল কি হতে পারে। এবং ১০ টি সোশ্যাল সাইটের বিষয়। আশা করি আজকের পোস্টটি আপনার ভালো লেগেছে।  সোশ্যাল মিডিয়া বিষয় নিয়ে আপনার মনে যদি কোন প্রশ্ন থাকে তবে কমেন্ট করে জানাবেন। 

No comments